পুলিশের নতুন অস্ত্র ব্যবহার করছে হরতালে



( মডারেটর )

নভেম্বর 30, 2017

বাংলাদেশ

2

467

রাজপথের আন্দোলনে জনতাকে সামলাতে নতুন এক অস্ত্রের ব্যবহার শুরু করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ। আর এ অস্ত্রের নাম ‘সাউন্ড স্টিমুলেটর’।

তীক্ষ্ণ শব্দ তরঙ্গ সৃষ্টির মাধ্যমে আন্দোলনকারীদের সরে যেতে বাধ্য করাই এ এটির কাজ।

বাংলাদেশে হরতাল মানেই বিরোধী দলগুলোর বিক্ষোভ মিছিল আর পুলিশের লাঠিপেটা, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, ইট-পাটকেল ছোড়াছুড়ি। তবে আজ বৃহস্পতিবার সিপিবি, বাসদ, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চাসহ কয়েকটি বাম দলের ডাকা হরতালে সেই দৃশ্য চোখে পড়েনি। বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বাম দলগুলোর ডাকা আধাবেলা হরতালে শাহবাগ এলাকায় এই যন্ত্র ব্যবহার করে মিছিলকারীদের ছত্রভঙ্গ করে পুলিশ।

সকালে হরতালের শুরুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড় থেকে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ের দিকে অগ্রসর হন। শাহবাগ থানার সামনে পুলিশ বাধা দিলে তা ভেঙে তারা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন।

কিন্তু পুলিশ তাদের সাঁজোয়া যান থেকে ‘সাউন্ড স্টিমুলেটর’ ব্যবহার করলে আন্দোলনকারীদের সেখানে টেকা দায় হয়ে পড়ে। শব্দ থেকে বাঁচতে অনেকে দুহাতে কান ঢেকে ফেলেন। অনেকে কানে কাগজ বা তুলাজাতীয় কিছু গুঁজে শব্দ ঠেকানোর চেষ্টা করেন।

এক পর্যায়ে তারা সেখান থেকে সরে গিয়ে মিছিল নিয়ে চলে যান শেরাটন মোড়ের দিকে।

প্রগতিশীল ছাত্র জোটের নেতা ও বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জিলানী শুভ সাংবাদিকদের বলেন, যখন এই বিকট শব্দ করা হচ্ছিল, মনে হচ্ছিল কানের পর্দা ফেটে যাবে। অনেকটা বধির হয়ে যাওয়ার অবস্থা।

এই শব্দযন্ত্র ব্যবহারের কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, যাতে করে হরতালকরীদের কোনো বক্তব্য শোনা না যায় এবং তারা ওইখানে বসতে না পারে, সে জন্যই এ যন্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। যন্ত্রটি ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাছ থেকে নিয়ে এসেছি।

সেলিম

লেখক

Related Posts