প্রেমিকার হুকুমেই জীবন চলছে ?



( ব্লগার )

জানুয়ারী 24, 2018

বাস্তবতা

6

2,044

সম্পর্ক মধুর হয় রমণীর গুণে’ এই কথাটির উল্টোটিও ঘটতে পারে।

অর্থাৎ রমণীর কারণে সম্পর্কে লেগে যেতে পারে অশান্তি। বিশেষ করে অতিরিক্ত ‘ডমিনেট’ করার প্রবণতা আছে যেসব নারীর, তাদের প্রেমিকদের জীবন হয়ে ওঠে অশান্তিময়।

জীবনের নিয়ন্ত্রণ তখন আর নিজের হাতে থাকে না, চলে যায় প্রেমিকার হাতে।

স্বাধীনচেতা পুরুষের মন বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে অনেক ক্ষেত্রে।

তখন বাধ্য হয়েই সব হুকুম পালন করে অথবা সম্পর্কটাই ভেঙ্গে দেয়।  এছাড়াও তৈরি হয় বিষণ্ণতা, একাকীত্ব, হতাশার মতো মানসিক সমস্যা।

প্রেমিকাই কি জীবন নিয়ন্ত্রণ করছে কিনা, তা অনেক সময় বুঝেও উঠতে পারেন না অনেকে।

কিছু লক্ষণ মিলে গেলে বুঝতে পারবেন যে আপনার জীবন নিয়ন্ত্রণের চাবি এখন আপনার হাতে নেই, প্রেমিকার কাছে।

জেনে নিন লক্ষণগুলো:

বন্ধুদের সঙ্গে মিশতে মানা: আপনি যখনই আপনার বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে কোথাও যাওয়ার কথা বলেন, তখনই চোখ রাঙান আপনার প্রেমিকা।

অনুমতি ছাড়া যাওয়ার তো প্রশ্নই ওঠে না। দুজনের সম্পর্কে এটাই এখন নিয়ম হয়ে গেছে।

ক্ষমা চাওয়ার খেলা: ভুল দুই পক্ষের হলেও ক্ষমা আপনাকেই চাইতে হবে, এমনটাই চান আপনার প্রেমিকা। এমনকি ‘সরি’ না বলা পর্যন্ত সম্পর্ক কিছুতেই ঠিক হয় না।

যত ভাবেই রাগ ভাঙানোর চেষ্টা করা হোক, ‘সরি’ বলাটাই গুরুত্বপূর্ণ এক্ষেত্রে।প্রেমিকা

ব্যক্তিগত জীবন নেই: বন্ধুদের সঙ্গে ফোন নিয়ে একটু চ্যাটিং করছেন, কিন্তু শান্তি নেই। এত রাতে আপনি অনলাইন কেন, এই প্রশ্নের উত্তর আপনার প্রেমিকাকে দিতেই হবে।

এছাড়াও আপনার পাসওয়ার্ডও প্রেমিকাকে জানিয়ে রাখতে হয়েছে। ব্যক্তিগত বলতে এখন কিছুই নেই আপনার।

টাকা খরচের নিয়ন্ত্রণ: আপনার অর্জিত অর্থ আপনি কীভাবে ব্যয় করবেন, সেটাও নিয়ন্ত্রণ করছে প্রেমিকা।

বন্ধুদের খাওয়ালে কিংবা নিজের বা পরিবারের জন্য একটু দামী কিছু কিনলেই প্রেমিকা সেটাকে অর্থের অপচয় ভাবছে।

কী করবেন এক্ষেত্রে?

প্রেমিকাকে বুঝিয়ে বলুন যে আপনারও ব্যক্তিগত জীবন আছে। তার এধরণের আচরণের কারণে পরিবার এবং বন্ধুদের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হওয়ার বিষয়টিও তাকে বুঝিয়ে বলুন।

বিষয়টি যে আপনার জন্য মানসিক যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে তা জানান আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে। প্রয়োজনে কাউন্সেলিংও করতে পারেন দুজনে।

তাতে সম্পর্ক অনেকটাই ঠিক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

রিয়াদ নোমান

সামান্য লিখার চেষ্টা! ইহা সামান্য নয় ।

Related Posts