ভিড় বেড়েছে ট্রেনে, যাত্রী নেই বাসে



( মডারেটর )

জুন 12, 2018

বিবিধ

4

1,379

আর মাত্র তিন অথবা চারদিন পরই খুশির ঈদ। নগরীর কর্মব্যস্ত মানুষগুলো এখন বাড়ি ফেরার ব্যস্ততায় মগ্ন। জনস্রোত এখন বাস টার্মিনাল রেলস্টেশন মুখী। মঙ্গলবার রাজধানী থেকে দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। আজ কমলাপুর রেলস্টেশনে যাত্রীর চাপ ছিল অন্যান্য দিনের চাইতে একটু বেশি। অন্যদিকে বাস টার্মিনালগুলো ছিল তুলনামূলক ফাঁকা।

komlapur eid

মঙ্গলবার কমলাপুর রেল স্টেশনে ছিল ঘুরমুখো মানুষের ভিড়। যারা গত ৩ জুন টিকিট সংগ্রহ করেছেন তারাই আজ ঢাকা ছেড়েছেন। মঙ্গলবার সারাদিনে মোট ৩১টি আন্তঃনগর ট্রেনসহ ৬৬টি ট্রেন বিভিন্ন গন্তব্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে। তবে কিছু ট্রেন ছাড়তে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে।

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনে স্বপরিবারে দিনাজপুর যাচ্ছিলেন চাকুরিজীবী আন্দালিব রহমান। তিনি বলেন, ‘যত কষ্টই হোক ঈদে বাড়ি যাওয়াটা সবসময় আনন্দের। যে এলাকায় আমার শৈশব কেটেছে সেখানে যেতে কার না ভালো লাগে। তাছাড়া পরিবার-পরিজনকে নিয়ে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেয়ার মজাই আলাদা।’

দেখা গেছে, মঙ্গলবার সকালের দিকে কয়েকটি ট্রেন কিছুটা দেরি করে ঢাকা ছেড়েছে। খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি আজ সকাল ৬টা ২০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও সেটি ঢাকা ত্যাগ করেছে ৬টা ৫২ মিনিটে। সৈয়দপুর-চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৮টায় ছাড়ার কথা থাকলেও সকাল ৯টা ছয় মিনিটে স্টেশন ছেড়েছে। এছাড়া অন্যান্য ট্রেনগুলো মোটামুটি ১০/১৫ মিনিট হেরফেরে ছেড়েছে।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্ত্তী বলেন, দুটি ট্রেন দেরি করে আসায় একটু লেট হয়েছে। তবে ট্রেনের সিডিউল স্বাভাবিক আছে। নীলসাগরে টিকিট ছাড়া যাত্রী বেশি ওঠে। এসব নিয়ন্ত্রণ করতে দেরি হয়ে গেছে। তবে সবকিছু মোটামুটি স্বাভাবিক আছে।’

তবে রাজধানী থেকে ছেড়ে যাওয়া দূরপাল্লার বাসে যাত্রীদের তেমন ভিড় নেই। যাত্রী না থাকায় বাস ছাড়ছে কম। সায়েদাবাদ আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কালাম বলেন, ‘সকাল থেকে টার্মিনালে যাত্রীদের তেমন কোন চাপ নেই। দূরপাল্লার অনেক বাস যাত্রীই পাচ্ছে না। সড়কে যানজট তুলনামূলক কম।’ মঙ্গলবার বিকাল থেকে ঘরমুখো মানুষের চাপ কিছুটা বাড়বে বলে জানান তিনি।

সেলিম

লেখক

Related Posts