সবার রেকর্ড ছাড়িয়ে ইতিহাস এর সফলতম অধিনায়ক মাসরাফি



( মডারেটর )

জানুয়ারী 23, 2018

খেলাধুলা

6

2,394

বাংলাদেশে এর ক্রিকেট ইতিহাস এ সফলতম অধিনায়ক এর নাম বলা হলে সবার আগে উঠে আসে হাবিবুল বাশারের নাম। কেননা তার হাত ধরে মুলত ক্রিকেট বিশ্বের সব ক্রিকেট পড়া শক্তিদের পরাজিত করতে শুরু করে টিম টাইগাররা।

হাবিবুল বাশার একে একে সবার রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছেন। কিন্তু সেই বাশারে রেকর্ডো ভেঙ্গে দিলে তার এক সময়ের সতীর্থ এবং বর্তমান বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

বাংলার টিম টাইগারের দের সকল অধিনায়েকর সাফল্যে সব রেকর্ড মঙ্গলবার ছাড়িয়ে গেলেন মাশরাফি।

দেশেরপক্ষে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জেতার রেকর্ডটি এখন আর হাবিবুলের নয়, এখন শুধু মাশরাফির।

তার নেতৃত্বেই সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ ওয়ানডে দল। ৩০ জয় ম্যাচ জয়ের রেকর্ড সবার আছেন ম্যাশ।

ত্রিদেশীয় সিরিজে শ্রীলঙ্কার সাথে জিতে দু’জনার ছিল ২৯ ম্যাচ জয়ের সমান সমান দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার রেকর্ড। আজ মঙ্গলবার টানা তৃতীয় জয় দিয়ে সেটি ছাড়িয়ে গেলেন মাশরাফি।

মাশরাফির নেতৃত্বেই বাংলাদেশ ওয়ানডেতে দেশকে ৫৮.৮২ শতাংশ ম্যাচে জিতিয়েছেন মাশরাফি।

৫৩ ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব করে জয় যেখানে ৩০টি, হার সেখানে ২১টি। এক ম্যাচের ফল হয়নি।

আর জয়ের শতাংশের হিসেবেই মাশরাফি সবার আগে।

হাবিবুল এতদিন দেশের সবচেয়ে সফল ওয়ানডে অধিনায়ক ছিলেন ২০০৪ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত টাইগারদের ৬৯ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে ২৯ জয়ে।

৪০টি ম্যাচ তার নেতৃত্বে হেরেছে বাংলাদেশ। জয়ের শতাংশ ৪২.০২।

মাশরাফির নেতৃত্বে বাংলাদেশ দ্বিতীয় ম্যাচেই জয় পেয়েছিল। ২০১০ সালে।

ওই বছরের শেষে ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় মাশরাফি।

নেতৃত্ব আবার ফিরে পেতে ২০১৪ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে। মুশফিকু রহীমের কাছ থেকে ২০১৪ সালে ফের ওয়ানডের নেতৃত্ব পান মাশরাফি। তারপরও জয়ের এই ধারা।

বাংলাদেশের ১৩ অধিনায়কের মধ্যে সাফল্যের বিচারে মাশরাফি-হাবিবুলের পরই আছেন সাকিব আল হাসান। ২০০৯ থেকে নেতৃত্বে ছিলেন। পরে হারিয়েছেন।

আবার মাশরাফির অনুপস্থিতিতেও নেতৃত্ব দিয়েছেন দলকে। মোট ৫০ ম্যাচে তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জিতেছে ২৩টিতে। ২৬টিতে হার। একটির ফল হয়নি।

৪৬.৯৩ জয়ের শতাংশ। চতুর্থ স্থানে মুশফিক। । ৩৭ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে জিতিয়েছেন ১১টিতে।

মোহাম্মদ আশরাফুল এক ম্যাচে বেশি নেতৃত্ব দিয়েছেন মুশফিকের চেয়ে। কিন্তু তার সময়ে বাংলাদেশ জিতেছে ৮ ম্যাচে।

খালেদ মাসুদ পাইলট (২০০১-২০০৬) ৩০ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে জিতিয়েছিলেন ৪টিতে।

আমিনুল ইসলাম বুলবুল (১৯৯৮-২০০০) এরপরই। ১৬ ম্যাচে তার নেতৃত্বে ২টি জয় বাংলাদেশের।

এছাড়া আকরাম খান (১৯৯৫-১৯৯৮) ১৫ ম্যাচে নেতৃত্ব দিলেও জেতাতে পেরেছিলেন মোটে একটিতে।

খালেদ মাহমুদ সুজন (২০০৩-২০০৩) ১৫ ম্যাচে নেতৃত্ব দিলেও দেশকে জেতাতে পারেননি একবারও।

যেমনটা পারেননি গাজী আশরাফ লিপু (১৯৮৬-১৯৯০) ৭, নাইমুর রহমান দূর্জয় (২০০০-২০০১) ৪, মিনহাজুল আবেদীন নান্নু (১৯৯০-১৯৯০) ও রাজিন সালেহ (২০০০-২০০৪) ২ ম্যাচে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়ে।

আলামিন

লেখক

Related Posts