সবচেয়ে কম বাজেটে সর্বোচ্চ কনফিগারেশন এর Gaming cpu কিনুন ।


9

1,963

সবচেয়ে কম বাজেটে সর্বোচ্চ কনফিগারেশন এর  Gaming cpu 

অনেকেই কম্পিউটার কেনার সময় ভাল গাইডলাইনের অভাবে আশানুরুপ সিপিইউ পাননা । যেহেতু একটা কম্পিউটারের সমস্ত কার্য সিপিইউ এর মধ্যেই সম্পাদিত হয় সুতরাং এর কনফিগারেশন আশানুরুপ না হলে কারোরই ভাললাগেনা । কিন্তু শুধু ভাল কনফিগারেশন নিয়ে ভাবলেই হবেনা, আমাদের বাজেটটা নিয়েও ভাবতে হবে । কারন বাজেট যত বড় কনফিগারেশন ততই ভাল । কিন্তু যাদের বাজেট একটু কম তারা কি ভাল কনফিগারেশন এর সিপিউ ব্যাবহার করবেনা তা কেমন করে হয়!  আমরা চাচ্ছি কম খরচে সর্বোচ্চ কনফিগারেশনের gaming cpu কিনতে। তাই আপনাদের জন্য আমি এই রিভিউটি লিখছি । তো চলুন কম্পিউটার বাজার থেকে ঘুরে আশা যাক,,

১. মাদারবোর্ড  ( Mother Board ):

বাজারে এখন অনেক ব্রান্ডের এবং অনেক ধরনেরই মাদারবোর্ড আছে । আমরা অন্য কোন ব্রান্ডএ ফোকাস না করে সোজা Gigabyte এর কথা বলি, কারন ব্যাক্তিগত ভাবেই আমি Gigabyte পছন্দ করি , এর সর্বোচ্চ কাজের চাপ বহন করার ক্ষমতা  এবং এর লম্বা আয়ুর করনে । আমরা যেহেতু কম বাজেটে gaming cpu কনফিগার করবো তাই অনলাইনে ঘাটাঘাটি করে আমি পছন্দ করেছি Gigabyte এর GA. B250M – HD3 মাদারবোর্ডটা । এই মাদারবোর্ড এর বিশেষত্ব হলো এর অত্যাধুনিক টেকনোলজি এবং একই সাথে চারটি র‌্যাম স্লট যা এই দামের ভেতর অন্যান্য মাদারবোর্ডে পাওয়া যায়না  । অর্থাৎ আপনি এই মাদারবোর্ড এ একসাথে চারটি র‌্যাম ব্যাবহার করতে পারবেন এবং এতে সর্বোচ্চ ৬৪ জিবি মেমরী ব্যাবহার করতে পারবেন ।

 

GA. B250M - D3H মাদারবোর্ড
GA. B250M – D3H মাদারবোর্ড
GA. B250M - D3H মাদারবোর্ড
GA. B250M – HD3 মাদারবোর্ড

এই মাদারবোর্ড টি ইন্টেল কোর এর  6th এবং 7th  জেনারেশন প্রসেসর সাপোর্ট করে ।  বর্তমানে ৭০০০ থেকে ৭৫০০ টাকার মধ্যে মাদারবোর্ডটি কিনতে পারবেন । সুতরাং কম বাজেটে গেমিং পিসি বিল্ডআপ করার জন্য আমার এই মাদারবোর্ডটি বেস্ট মনে হয়েছে এবং অন্যান্য এক্সপার্ট ভাইয়েরাও  এই মাদারবোর্ডটি রিকমেন্ড করেছেন ।

২. প্রসেসর ( Processor ) : 

যেহেতু আমরা কম বাজেটের মধ্যে বেস্ট gaming cpu বিল্ডআপ করছি সুতরাং আমি আপনাদের জন্য রিকমেন্ড করবো intel – CORE I3 – 7100 ।অর্থাৎ এটি কোর-আই ৩ , ৭ম জেনারেশন এর প্রসেসর এবং এটির বর্তমান মুল্য  ৯০০০ থেকে ৯৫০০ টাকা । 

intel – CORE I3 – 7100

সাধারন কম্পিউটারে জন্য অন্যান্য প্রসেসর হলেও চলে, কিন্তু গেমিং পিসির জন্য অবশ্যই আপনাকে নূন্যতম  core i3 ব্যাবহার করতে হবে ।

৩. র‌্যাম ( RAM ) :

আপনি হয়তো অফিসিয়াল কােজ কিংবা সাধারন ব্যাবহরের জন্য গেমিং সিপিইউ কিনবেননা । আপনি যেহেতু গেমিং সিপিইউ কিনতে চাচ্ছেন সেহেতু আপনার টার্গেট উচ্চ গ্রাফিক্সের গেম খেলা কিংবা ভিডিও এডিটিং এর কাজ করা । এসব কাজের জন্য আপনাকে নূন্যতম ৮জিবি র‌্যাম ব্যাবহার করতে হবে । ৮ জিবির নিচে হলে আপনার আর গেমিং সিপিউ কিনে কাজ নেই ।

DDR4 vengeance lpx 8gb 2400mhz
DDR4 vengeance lpx 8gb 2400mhz

আমারা যে মাদারবোর্ডটি ব্যাবহার করছি সে অনুযায়ি র‌্যাম হচ্ছে  DDR4 vengeance lpx 8gb 2400mhz  অর্থাৎ ২৪০০ বাসের ডিডিআর-৪, ৮ জিবি র‌্যাম আবশ্যক ।  এটির বাজার মুল্য বর্তমানে ৭৫০০ থেকে ৮০০০ টাকা ।

৪. গ্রাফিক্স কার্ড :

উচ্চ মানের গেম খেলা কিংবা যেকোন উচ্চমানের গ্রাফিক্সের কাজ করার জন্য আপনাকে অবশ্যই গ্রাফিক্স কার্ড ব্যাবহার করতে হবে । গ্রাফিক্স কার্ড ছাড়া গেমিং পিসি কল্পনাই করা যায়না । এর জন্য আমি আপনাদের রিকমেন্ড করবো গিগাবাইট এর  GTX 730 – 2GB DDR5  গ্রাফিক্স কার্ড ।

 এটি গিগাবাইট এর একটি ডেডিকেটেড গ্রাফিক্স কার্ড ।  এর বাজার মুল্য বর্তমানে ৬০০০ থেকে ৬২০০ টাকা  । 

৫. হার্ডডিস্ক ড্রাইভ ( HDD ) :

হার্ডডিস্ক কতটুকু লাগাবেন তা আপনার চাহিদার উপর নির্ভরশিল । তবে আমি রিকমেন্ড করবো  ১ টেরাবাইট লাগানোর জন্য । এতে আপনার ৪০০০ থেকে ৪৫০০ টাকা খরচ হবে ।

৬. ডিভিডি ড্রাইভ ( DVD ) :

Samsun DVD Writter
Samsun DVD Writter

এর জন্য আপনাকে আমি রিকমেন্ড করবো স্যামসাং এর DVD Writter । ডিভিডি ড্রাইভের মধ্যে দুরকম আছে, একটা হচ্ছে শুধূমাত্র রিডার, আরেকটা হচ্ছে রিডার+রাইটার । এতে আপনার খরচ হবে ১০০০ -১৫০০ টাকা ।

৭. কেসিন : 

কেসিন এর উপর আপনারে সিপিউ এর পারফের্মেন্স নির্ভর করেনা সুতরাং আপনি যতটুক সম্ভব কম দামের ভেতরে কেসিন নেওয়ার চেস্টা কেরবেন। বর্তমানে বাজারে ২০০০ – ২৫০০ টাকার ভেতরে অনেক ভাল ভাল কেসিন পাওয়া যায় । 

এবার আসুন সবমিলিয়ে আমাদের কত টাকা খরচ হতে পারে দেখা যাক :

১. মাদারবোর্ড  ( Mother Board )  –  ৭৫০০ টাকা

২. প্রসেসর ( Processor )              –   ৯৫০০ টাকা

৩. র‌্যাম ( RAM )                           –   ৮০০০ টাকা    

৪. গ্রাফিক্স কার্ড                            –  ৬২০০ টাকা      

৫. হার্ডডিস্ক ড্রাইভ ( HDD )          –   ৪৫০০ টাকা

৬. ডিভিডি ড্রাইভ ( DVD )            –  ১৫০০ টাকা

৭. কেসিন :                                  – ২০০০  টাকা

_____________________________________________________

মোট   –                                        ৩৯,২০০ টাকা ।

 

তো আমরা মোটামুটি ৪০,০০০ হাজার টাকার মধ্যে অনেক ভাল কনফিগারেশন এর একটি গেমিং সিপিইউ বাজেট জেনে নিলাম । আমি প্রত্যেকটি পার্ট্স এর মুল্য বাজার মুল্যের চেয়ে একটু বাড়িয়ে ধরেছি । আপনি কিনতে গেলে বাজারে ৩৫,০০০ টাকার মধ্যেই সবকিছু পেয়ে যাবেন । আর এই সিপিইউ দিয়ে আপনি বর্তমানের উচ্চ লেভেলের গেম গুলো আরামসে খেলতে পারবেন কোন রকম ঝামেলে ছাড়ায় । যেখানে বর্তমানে রেডিমেট Gaming CPU  কিনতে গেলে বাজেট ৮০,০০০ টাকার নিচে ভাবাই যায়না, সেখানে মাত্র ৪০,০০০ টাকার মধ্যে আমরা অনেক ভাল কনফিগারেশন এর একটি গেমিং সিপিইউ পেয়ে যাচ্ছি । এর চেয়ে ভাল আর কি হতে পারে ।

 

 

 

 

 

 

মোস্তাফিজ আর রহমান

আসসালামু আলাইকুম,, আমি মোস্তাফিজ, ডাক নাম উল্লাস । আপনি আমার এবাউট পড়ছেন এর মানে আপনি এই মুহুর্তে আমার প্রোফাইলে আছেন এবং তার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আসলে আমি যখন থেকে ইন্টারনেট জগতের সাথে পরিচিত হয়েছি ঠিক তখন থেকেই অনলাইনে বিভিন্ন লেখকদের লেখা পড়তাম আর তাদের কাছ থেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখি করার চেষ্টা করতাম । আমি ২০১২ তে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলাম , তারপর ওয়েবসাইট এবং সফ্টওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এর উপর কোর্স করে পড়াশুনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ করতে থাকি । ব্লগিংএ খুব বেশি আকর্ষন থাকার কারনে ২০১৭ এর ৮ই অক্টোবর ”জনতা ব্লগ” এর প্রতিষ্ঠা করি। আমি সবসময় চেষ্টা করেছি ব্লগ এ মানসম্মত কিছু লোখার জন্য, তাই পাঠকদেরে কাজে লাগবে সেই সমস্ত টপিক গুলোর উপরেই লেখার চেষ্টা করি । ”জনতা ব্লগ” এর অন্যান্য লেখকদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই তাদের মুল্যবান প্রকাশনা গুলোর জন্য । একটা ব্লগের সবচেয়ে মুল্যবান সম্পদ হলো সেই ব্লগ এর নিয়মিত যারা লেখক এবং পাঠক আছেন, তাহাদের অবদান সত্যিই অনস্বীকার্য। তাই আপনাদের আবারও ধন্যবাদ জানাই ”জনতা ব্লগ” এর হাতে হাত রেখে পাশাপাশি চলার জন্য । আপনারা পাশে আছেন বলেই আমরা এ পর্যন্ত এগিয়ে আসতে পেরেছি ।

Related Posts