Raspberry Pi 3 Review – কম্পিউটার এখন আপনার পকেটে রাখুন



Raspberry Pi 3 Review :

এই যন্ত্রটির সাথে আমাদের বাংলাদেশের অনেকেই পরিচিত না, কারন টেকনোলজির দিক থেকে আমরা এখনও খুব বেশি এগিয়ে নেই, তারপরেও  প্রযুক্তিতে আমরা  দিন দিন এগিয়ে চলেছি সামনের দিকে । Raspberry Pi 3 যন্ত্রটি লন্স হয়েছে ২০১৬  এর ২৯সে ফেব্রূয়ারীতে, ২০১৬ তে এটি বাংলাদেশে তেমন একটা এভেইলেবল ছিল না, ২০১৭ এর মাঝামাঝি সময়ে এটি বাংলাদেশে এভেইলেবল হয় । শুধূমাত্র প্রযুক্তি প্রেমীরা ছাড়া খুব স্বল্প মানুষই এ যন্ত্রটি সম্পর্কে জানেন । অনলাইনে ঘাটাঘাটি করে দেখলাম বাংলাদেশের অনেক বড় বড় ব্লগেও এই  Raspberry Pi 3 নিয়ে কোন রিভিউ লিখা হয়নি । তাই ভাবলাম জনতাব্লগ এ আমিই একটা রিভিউ লিখে ফেলি ।

Raspberry Pi 3

এটি হচ্ছে অনেকটা কম্পিউটারের মাদারবোর্ড এর মিনি ভার্শন ( জাস্ট কিডিং ব্রো  😈 ), সাধারন ভাবে দেখতে গেলে এটি একটি সাধারন সার্কিট বোর্ড । এই বোর্ড এর সাথেই অন্যান্য ইনপুট এবং আউটপুট যন্ত্র সংযোগ করতে হয় এই যেমন মনিটর, কীবোর্ড, মাউস, মেমরী কার্ড ইত্যাদি ।  এর সাইজ অনেকটা ভিজিটিং বা ক্রেডিট কার্ড এর মতই । আর দামও খুব বেশি না । শুধূ র‌্যাস্পবেরী মাদারবোর্ডটা বাংলাদেশি টাকায় ৩০০০ থেকে ৩৫০০  টাকার মতন হবে ।

Raspberry Pi 3 - সোর্স : জনতা ব্লগ
Raspberry Pi 3 – সোর্স : জনতা ব্লগ

এটি দেখতে শুধুমাত্র েএকটা সার্কিট-বোর্ড কিন্তু কাজের দিক থেকে এটি কিন্তু একটা কম্পিউটার থেকে কোন অংশে কম না । একটা কম্পিউটারে আপনি যে যে কাজ করতে পারেন ঠিক সেই কাজ গুলোই আপনি Raspberry Pi 3 তে করতে পারবেন ।

Raspberry Pi 3 স্পেসিফিকেশন :

আসুন জেনে নিই Raspberry Pi 3 তে আমরা কি কি পাচ্ছি !

SoC: Broadcom BCM2837
CPU: 4× ARM Cortex-A53, 1.2GHz
GPU: Broadcom VideoCore IV
RAM: 1GB LPDDR2 (900 MHz)
Networking: 10/100 Ethernet, 2.4GHz 802.11n wireless
Bluetooth: Bluetooth 4.1 Classic, Bluetooth Low Energy
Storage: microSD
GPIO: 40-pin header, populated                                                                                                                                                                        Ports: HDMI, 3.5mm analogue audio-video jack, 4× USB 2.0, Ethernet, Camera Serial Interface (CSI), Display Serial Interface (DSI)

Raspberry Pi 3 - সোর্স : জনতা ব্লগ
Raspberry Pi 3 – সোর্স : জনতা ব্লগ

অর্থাৎ সহজ ভাষায় যদি বলি তাহলে Raspberry Pi 3 তে আমরা পাচ্ছি  ১.২ গিগা হার্টজ এর কুয়ার্ড কোর প্রসেসর  এবং ১জিবি র‌্যাম । ইন্টারনেট ব্যাবহার করার জন্য থাকছে বিল্ডইন  ওয়াই-ফাই এবং ইথারনেট পোর্ট যা দিয়ে আপনি সরাসরি ব্রডব্যান্ড এর ক্যাবল লাগিয়ে ইন্টারনেট ব্যাবহার করতে পারবেন , আবার চাইলে ওয়াই-ফাই ও ব্যাবহার করতে পারবেন ।

এতে চারটি USB ২.০ পোর্ট রয়েছে , এই পোর্ট গুলোর মাধ্যমে আপনি কী-বোর্ড, মাউস ব্যাবহার করতে পারবেন এবং ফাইল আদান প্রদানের জন্য পেন্ড্রাইভ , কার্ড-রিডার ইত্যাদি ব্যাবহার করতে পারবেন । 

Raspberry Pi 3 তে মাইক্রো-এসডি মেমরীকার্ড এর জন্য একটি  স্লট রয়েছে । মেমরী কার্ডকে বুটেবল করে উইন্ডোজ, কালি লিনাক্স সহ অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম ব্যাবহার করা যায় । 

এতে একটি HDMI এর পোর্ট রয়েছে , এ ই পোর্ট এর মাধ্যমে আপনি স্ক্রীন হিসেবে  LED ডিসপ্লে ব্যাবহার করতে পারবেন । বাজারে বিভিন্ন মডেলের বিভিন্ন সাইজের LED ডিসপ্লে পাওয়া যায় । এই ডিসপ্লে গুলোর দাম ৩০০০ থেকে আরম্ভ করে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে ।

Raspberry Pi 3 – সোর্স : জনতা ব্লগ

Raspberry Pi 3 তে কি কি করা যায় ?

আপনি যদি এরকম প্রশ্ন করেন তাহলে আমার উত্তর কম্পিউটারের এমন ‍কিছুই নেই যা এতে করা যায়না । আপনি এতে কম্পিউটারের মত করে উইন্ডোজ সেটআপ করে কম্পিউটারের যেকোন সফ্টওয়্যার ব্যাবহার করতে পারছেন । যাদের হ্যাকিং এ শখ আছে তাদের জন্য এটি একটা পাওয়ারফুল হ্যাকিং মেশিনের পরিচয় বহন করে । কারন আপনি এতে কালি-লিনাক্স, প্যারট সিকিউরিটি, উবুনতু এসব অপারেটিং সিস্টেম সেটআপ করে ব্যাবহার করতে পারবেন ।

Raspberry Pi 3 তে কি কি করা যায়
Raspberry Pi 3 তে কি কি করা যায় ? – সোর্স : জনতা ব্লগ

আপনি এতে ১জিবি র‌্যাম হিসেব করে  মিডিয়াম লেভেলের গেমস গুলো আরামসে খেলতে পারবেন, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, গান শোনা, ভিডিও দেখা, অফিসিয়াল কাজ যেমন মাইক্রোসফ্ট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট এ সব এর কাজ করতে পারেন । 

 

Raspberry Pi 3 কিভাবে ব্যাবহার করতে হয় ?

Raspbery Pi 3  ব্যাবহার করার জন্য আপনার আরও কয়েকটা জিনিসের প্রয়োজন হবে । 

Raspberry Pi 3 Mother Board:  এটিই সাধারনত র‌্যাস্পবেরীর মূল অংশ, এটি একটি সার্কিটবোর্ড । এই সর্কিট বোর্ডটি অনেকটা কম্পিউটারের মাদারবোর্ড এর মত কাজ করে । এই সার্কিটবোর্ড এই বিভিন্ন ধরনের ইনপুট এবং আউটপু যন্ত্রের সংযোগ দিয়ে একটি পরিপূর্ন পকেট কম্পিউটার হিসেবে ব্যাবহার করা যায় ।

Raspberry Pi 3 Mother Board
Raspberry Pi 3 Mother Board

LED Display :  মনিটর হিসেবে আপনার একটি LED ডিসপ্লে ব্যাহার করতে হবে ।  এটি আপনাকে আলাদা কিনতে হবে ।  ৫”  টাচ স্ক্রিন এর দাম পড়বে ৪,০০০ টাকার মতন । HDMI ক্যাবল এর সাহায্যে র‌্যাস্পবেরী মাদারবোর্ড এর সাথে টাচ-স্ক্রিনটি কানেক্ট করতে হয় । কিভাবে কানেক্ট করতে ।

5inch HDMI Touch Screen
5inch HDMI Touch Screen

 

পাওয়ার ব্যাংক অথবা মোবাইল চার্জার  :  Raspberry Pi 3 তে কোন বিল্টইন ব্যাটারী নেই । তাই এতে পাওয়ার চালনা করার জন্য  আপনাকে পাওয়ার ব্যাংক অথবা মোবাইল চার্জার ব্যাবহার করতে হবে । 

কেস / স্ট্যান্ড :  এটি যাতে সহজে বহন করা যায় এবং ব্যাবহারে সময় যাতে কোন ঝামেলা না হয় তার জন্য বিভিন্ন রকম প্লাস্টিকের কেস এবং স্ট্যান্ড রয়েছে বাজারে । আপনি প্রয়োজন মনে না করলে এগুলো নাও ব্যাবহার করতে পারেন। এগুলো খুব বেশি গুরুত্বপূর্ন না ।

কী-বোর্ড এবং মাউস : বিভিন্ন ধরনের লিখালিখির কাজ এবং অন্যান্য যাবতীয় কমান্ড ইনপুট  করার জন্য কম্পিউটারের মত করে Raspberry Pi 3 তেও কী-বোরর্ডে এবং মাউস ব্যাবহার করতে হয় । USB পোর্ট এর মাধ্যমে এগুলো কানেক্ট করতে হয়  । অবশ্য টাচ-স্ক্রিন ব্যাবহার করলে কী-বোর্ড, মাউস এসব ব্যাবহার না করলেও চলে। আবার অনেক ক্ষেত্রে এসব এর বিকল্প নেই ।

  

 

HDMI এডাপ্টর :  র‌্যাস্পবেরী মাদারবোর্ড এর সাথে LED Touch Screan এর সংযোগ স্থাপন করার জন্যই এই HDMI এডাপ্টরটি ব্যাবহার করা হয় । 

HDMI এডাপ্টর
HDMI এডাপ্টর

মাইক্রো-এসডি মেমরী কার্ড: Raspberry Pi 3 তে কোন বিল্টইন মেমোরী নেই । তাই অপারেটিং-সিস্টেম ইনস্টল করার জন্য একটি মাইক্রো এসডি মোমরী কার্ড প্রয়োজন হবে ( আমরা মোবাইলে যে মেমরী কার্ড ব্যাবহার করি ) । র‌্যাস্পবেরী কিনলে এর সাথে একটি ৮জিবি মেমোরী কার্ড ফ্রি পাবেন। এর ভেতর র‌্যাস্পবেরীর অফীসিয়াল অপারেটিং-সিস্টেম সেটআপ দেওয়া থাকে, এটা দেখতে অনেকটা  উইন্ডোজ ৭ এর মতই। এই অপারেটিং-সিস্টেম অনেকে পছন্দ করে, আবার অনেকে করেনা । তাই আপনি চাইলে উইন্ডোজ ৭, অথবা কালি লিনাক্স ইনস্টল করে ব্যাবহার করতে পারেন । 

 

যেহেতু কম্পিউটারের সব কিছুই এই ছোট একটা সার্কিট-বোর্ড এর মাধ্যমে করা যাচ্ছে তাই আমার মতে এটি সত্যিই খুবই উপকারি একটা গ্যাজেট। আর এতে খরচ ও খুব বেশি না । আপনি ৭০০০ থেকে ৮০০০ টাকায় সম্পূর্ন প্যাকেজ পেয়ে যাবেন ।

যারা প্রোগ্রামার কিংবা হ্যাকার তাদের জন্য এটি  একটি বেস্ট হ্যাকিং মেশিন হতে পারে । আমার মতে বিভিন্ন ধরনের ইথিক্যাল হ্যাকিং, পেইন-টেস্টিং ইত্যাদি যাবতীয় কাজের জন্য এটি একটি বেস্ট গ্যাজেট । েআপনি খূব সহজেই এটিকে আপনার পকেটে  বহন করতে পারেন ।

আপনি চাইলে যে কারো ওয়াই-ফাই নিমিষেই জ্যাম করে দিতে পারেন, যদিও এটি এথিক্যাল হ্যাকিং এর ভেতর পড়েনা, এবং এই করতে গিয়ে ধরাে খেলে আপনার জন্য ৬ বছরের জেলের শুকনো রুটি কনফার্ম হতে পারে, তাই সাবধনা! । বর্তমানে বাইরের দেশগুলোতে বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এটিকে ওয়াই-ফাই জ্যামার হিসেবে ব্যাবহার করছে । আমাদের বাংলাদেশের পুলিশ এখনও এত বেশি স্মার্ট হতে পারেনি । 

কিভাবে Raspberry Pi 3 সেটআপ করে ব্যাবহার করবেন !

কিভাবে সেটাপ করবেন তা এখন আর লিখে বলবনা । লিখা পড়াে আমরা কেউই পছন্দ করিনা ।  আপনি সোজাসুজি ভিডিও দেখেই শিখে নিন । 

তো পাঠকবৃন্দ আমার রিভিউটি কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাবেন । কোন প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় করতে পারেন , একটু নিচের দিকে যান, কমেন্ট বক্স পেয়ে যাবেন ।  আর আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিতে ভুলবেননা ।  ধন্যবাদ সবাইকে, শুস্থ থাকুন ভাল থাকুন, যেভাবেই থাকুন – জনতা ব্লগ এর সাথে থাকুন ।

 

 

 

মোস্তাফিজ আর রহমান

আসসালামু আলাইকুম,, আমি মোস্তাফিজ, ডাক নাম উল্লাস । আপনি আমার এবাউট পড়ছেন এর মানে আপনি এই মুহুর্তে আমার প্রোফাইলে আছেন এবং তার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । আসলে আমি যখন থেকে ইন্টারনেট জগতের সাথে পরিচিত হয়েছি ঠিক তখন থেকেই অনলাইনে বিভিন্ন লেখকদের লেখা পড়তাম আর তাদের কাছ থেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখি করার চেষ্টা করতাম । আমি ২০১২ তে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলাম , তারপর ওয়েবসাইট এবং সফ্টওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এর উপর কোর্স করে পড়াশুনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ করতে থাকি । ব্লগিংএ খুব বেশি আকর্ষন থাকার কারনে ২০১৭ এর ৮ই অক্টোবর ”জনতা ব্লগ” এর প্রতিষ্ঠা করি। আমি সবসময় চেষ্টা করেছি ব্লগ এ মানসম্মত কিছু লোখার জন্য, তাই পাঠকদেরে কাজে লাগবে সেই সমস্ত টপিক গুলোর উপরেই লেখার চেষ্টা করি । ”জনতা ব্লগ” এর অন্যান্য লেখকদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই তাদের মুল্যবান প্রকাশনা গুলোর জন্য । একটা ব্লগের সবচেয়ে মুল্যবান সম্পদ হলো সেই ব্লগ এর নিয়মিত যারা লেখক এবং পাঠক আছেন, তাহাদের অবদান সত্যিই অনস্বীকার্য। তাই আপনাদের আবারও ধন্যবাদ জানাই ”জনতা ব্লগ” এর হাতে হাত রেখে পাশাপাশি চলার জন্য । আপনারা পাশে আছেন বলেই আমরা এ পর্যন্ত এগিয়ে আসতে পেরেছি ।

Related Posts